বাংলার কৃষকদের জন্য বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

কলকাতা: সরকারি ধান ক্রয় কেন্দ্রে ফড়েদের দাপট আটকাতে এবার চেকে কৃষকদের দাম মেটাবে রাজ্য সরকার। বুধবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গত দুই বছর ধরে কৃষকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ‘এনইএফটি’ করে সরাসরি টাকা পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছিল। তার আগে অবশ্য চেকেই দাম দেওয়া হত। আগের মতো চেকে ধানের দাম মেটালে ফড়েদের নিয়ন্ত্রণ

বাংলার কৃষকদের জন্য বড় ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রীর

কলকাতা: সরকারি ধান ক্রয় কেন্দ্রে ফড়েদের দাপট আটকাতে এবার চেকে কৃষকদের দাম মেটাবে রাজ্য সরকার। বুধবার নবান্নে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। গত দুই বছর ধরে কৃষকদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ‘এনইএফটি’ করে সরাসরি টাকা পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছিল। তার আগে অবশ্য চেকেই দাম দেওয়া হত। আগের মতো চেকে ধানের দাম মেটালে ফড়েদের নিয়ন্ত্রণ করা যাবে বলে মনে করছে রাজ্য সরকার। মুখ্যমন্ত্রী নবান্নে জানিয়েছেন, সরকারের উদ্দেশ্য হল কৃষকদের কাছ থেকে ধান কেনা। কিন্তু কিছু লোক ভুল বুঝিয়ে তাদের কাছ থেকে কম দামে ধান কিনে নিয়ে সরকারের কাছে তা বিক্রি করছে। মুখ্যমন্ত্রী জানান, কৃষকদের কাছ থেকে ধান কেনার জন্য আরও দুই হাজার কেন্দ্র খোলা হবে। প্রত্যন্ত এলাকাতে ধান কেনার আরও কেন্দ্র খোলা হবে। সরকারি সূত্রে জানা গিয়েছে, ফড়েদের আটকাতে ধান ক্রয় কেন্দ্রে পুলিসকে সক্রিয় হতে মুখ্যমন্ত্রী নির্দেশ দিয়েছেন।ডিসেম্বর মাস থেকে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় সরকারি উদ্যোগে ধান কেনা জোরকদমে শুরু হতে ফড়ে বা মধ্যসত্ত্বভোগী ব্যবসায়ীরা সক্রিয় হয়ে উঠেছে। এবার সাধারণ ধানের দাম প্রতি কুইন্টালে দুশো টাকা বেড়ে ১৭৫০ টাকা হয়েছে। স্থায়ী ক্রয় কেন্দ্রে আরও ২০ টাকা করে বোনাস দেওয়া হচ্ছে। যেখানে খোলাবাজারে সাধারণ ধানের দাম এখনও ১৪০০ টাকার আশপাশে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *