‘ডিম্ভাত’ নিয়ে বিরোধীদের ঠাট্টা সার, ‘মা ক্যান্টিন’ থেকে খেয়েছেন প্রায় দু’কোটি

‘ডিম্ভাত’ নিয়ে বিরোধীদের ঠাট্টা সার, ‘মা ক্যান্টিন’ থেকে খেয়েছেন প্রায় দু’কোটি

কলকাতা: সরকারি একাধিক প্রকল্প নিয়ে বিরোধীদের ঠাট্টা-তামাশা চলে। রাজ্যের শাসক দলকে এই নিয়ে নানা কটাক্ষের মুখেও পড়তে হয়েছে। বিশেষ করে, দলের কোনও অনুষ্ঠানে যদি ভাত এবং ডিম খাওয়ানো হয় তাহলে তা নিয়ে আলোচনা চলে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘ডিম্ভাত’ মিমের সঙ্গে তো প্রায় সকলের পরিচিতি আছে। কয়েক বছর আগে এই ডিম, ভাত খাওয়ানো নিয়ে ‘মা ক্যান্টিন’ চালু করেছিল সরকার, তাও মাত্র ৫ টাকায়। কটাক্ষ যতই হোক, তা নিয়ে অবশ্য বড় তথ্য সামনে এসেছে এবার।

২০২১ সালের অক্টোবর মাসে সরকারি ভাবে চালু হয়েছিল এই ‘মা ক্যান্টিন’। হিসেব অনুযায়ী, চলতি বছরের ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রাজ্যের প্রায় দু’কোটি মানুষ খেয়েছেন এই প্রকল্প থেকে। প্রসঙ্গত, এখান থেকেই ওই ‘ডিম্ভাত’ অর্থাৎ মুসুর ডাল, ডিম, ভাত এবং সঙ্গে এক পিস লেবু দেওয়া হয়। পুরসভা বলছে, ১ কোটি ৮৫ লক্ষ ৬৫ হাজার ৬৯০ জন এই ‘মা ক্যান্টিন’ থেকে খাবার খেয়েছেন বিগত বছরগুলিতে। শুধু তাই নয়, এখনও প্রতি মাসে শহরের প্রায় ৯ লক্ষের বেশি মানুষ মাত্র পাঁচ টাকার বিনিময়ে এই খাবার খাচ্ছেন। পুরসভার তথ্য আরও বলছে, শুরুতে ১৩৩টি ‘মা ক্যান্টিন’ চালু হলেও এখন তা বেড়ে ১৩৮টি হয়েছে।

তবে বিরোধীরা এই বিষয়টিকে নিয়ে যেভাবে হাসাহাসি করেন তার জন্য সর্বস্তরে ব্যাপক সমালোচনা হচ্ছে। অনেকের বক্তব্য, বিশেষ কোনও একটি রাজনৈতিক দলকে ছোট করার জন্য ডিম, ভাত নিয়ে ঠাট্টা করা হচ্ছে। অসংখ্য দরিদ্র মানুষ এই ডিম-ভাত খেয়েই বেঁচে আছেন, তারা যে এই খাবার খুব শখে খাচ্ছেন তা নয়। কিন্তু এই খাবারের জন্যই তারা বেঁচে আছেন। কেউ আবার বলছেন, বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালের বাইরেও এই ‘মা ক্যান্টিন’ চালু আছে। সেখানেও প্রচুর মানুষ খান। তবে শুধু যে দরিদ্ররা খান তা নয়, সব স্তরের মানুষই এখান থেকে খাবার খাচ্ছেন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *