‘আর একটা ঠ্যাংও ভেঙে দেব’, বিধানসভায় মিহিরকে হুমকি উদয়নের

‘আর একটা ঠ্যাংও ভেঙে দেব’, বিধানসভায় মিহিরকে হুমকি উদয়নের

কলকাতা:  সীমান্তবর্তী রাজ্যগুলিতে বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধি নিয়ে শুরু হয়েছে কেন্দ্র-রাজ্য তরজা৷ এদিন বিএসএফ-এর এক্তিয়ার নিয়ে শোরগোল বাধে বিধানসভাতেও৷ উপনির্বাচনে বিপুল ভোটে জিতে আসা উদয় গুহ এবং তাঁরই জেলার বিজেপি বিধায়ক মিহির গোস্বামীর মধ্যে শুরু হয় বাগ বিতণ্ডা৷

আরও পড়ুন- বিধানসভার স্পিকারের ভর্ৎসনা সুজিত বসুকে! কেন

প্রসঙ্গত, আজই বিধানসভায় পা রাখেন বিরোধী বিধায়করা৷ আলোচনার অন্যতম বিষয় হয়ে ওঠে বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধি৷ আর আলোচনা শুরু হতেই তুমুল বিতণ্ডা শুরু হয়৷ উদয়ন বলেন, তল্লাশির নামে বিএসএফ অত্যাচার চালাচ্ছে৷ অন্য দিকে উদয়নের বক্তব্যের তীব্র বিরোধিতা শুরু করেন বিজেপি বিধায়করা৷ সেই সময়, কোচবিহার নাটাবাড়ির বিজেপি বিধায়ক মিহিরের উদ্দেশে কিছু বলেন উদয়ন। পাল্টা জবাবও দেন মিহির। এর পরেই তাঁদের মধ্যে প্রবল কথা কাটাকাটি শুরু হয়৷ উত্তপ্ত হয়ে ওঠে বিধানসভা৷ উদয়ন মিহিরকে উদ্দেশে করে বলেন, ‘‘এক ঠ্যাং ভাঙা৷ আর একটি ঠ্যাংও ভেঙে দেব।’’ উদয়নের এই মন্তব্যের শোরগোল পড়ে যায় বিধানসভায়৷ বিরোধীরা স্পিকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন৷ 

এদিকে উদয়নের এহেন মন্তব্যে অসন্তোষ প্রকাশ করেন বিধানসভার অধ্যক্ষ৷ উদয়নকে মৃদু ধমকও দেন তিনি৷ এ প্রসঙ্গে উদয়ন গুহর অবশ্য সাফ মন্তব্য, ‘‘মিহির গোস্বামী সত্যি কথা বলেন না৷ গোস্বামী হলেও ভীষণ মিথ্যে কথা বলেন৷ ’’ তিনি কোনও কুরুচিকর মন্তব্য করেননি বলেও দাবি উদয়নের৷ তিনি বলেন, ‘‘কুরুচিকর মন্তব্য করলে স্পিকার রেকর্ড থেকে বাদ দিতেন৷ পা ভাঙার কথা বলিনি৷ বলেছি আপনার একটা পা ভাঙা৷ সাবধানে চলা ফেরা করুন না হলে আকেরটা পাও ভেঙে যাবে৷ বয়স হয়েছে লাফালাফি করতে গিয়ে পড়ে গিয়ে পা ভেঙে যেতে পারে৷ একদা সহকর্মী ও একই জেলার মানুষ হিসাবে সতর্ক করেছি৷’’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *