১৪ বছরে সবথেকে কম বিনিয়োগ

দেশে বিনিয়োগ বাড়ার যে তথ্য প্রধানমন্ত্রী মোদি দিচ্ছেন, তাকে ভুল প্রমাণ করল দ্য সেন্টার ফর ইন্ডিয়ান ইকনমি। ওই তথ্য অনুযায়ী গত ১৪ বছরে সবথেকে কম লগ্নি হয়েছে ভারতে। টানা তিন বছর ধরে সমীক্ষা করার পর বৃহস্পতিবার এই তথ্য প্রকাশ করেছে দ্য সেন্টার ফর ইন্ডিয়ান ইকোনমি। বছরের প্রথম দিকে জানুয়ারি ২০১৮ থেকে মার্চ পর্যন্ত দেশে বিনিয়োগ

১৪ বছরে সবথেকে কম বিনিয়োগ

দেশে বিনিয়োগ বাড়ার যে তথ্য প্রধানমন্ত্রী মোদি দিচ্ছেন, তাকে ভুল প্রমাণ করল দ্য সেন্টার ফর ইন্ডিয়ান ইকনমি। ওই তথ্য অনুযায়ী গত ১৪ বছরে সবথেকে কম লগ্নি হয়েছে ভারতে। টানা তিন বছর ধরে সমীক্ষা করার পর বৃহস্পতিবার এই তথ্য প্রকাশ করেছে দ্য সেন্টার ফর ইন্ডিয়ান ইকোনমি।

বছরের প্রথম দিকে জানুয়ারি ২০১৮ থেকে মার্চ পর্যন্ত দেশে বিনিয়োগ হয়েছে ৪ লক্ষ কোটি টাকা। কিন্তু শেষের দিকে তা দারুণ কমে যায়। ২০১৮ সালের প্রথমার্ধের তুলনায় অক্টোবর থেকে ডিসেম্বর মাসে বেসরকারি খাতে বিনিয়োগ কমেছে প্রায় ৬২% এবং সরকারি খাতে বিনিয়োগ কমেছে ৩৭%। বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পে বিনিয়োগ হয়েছে মাত্র ৫০,৬০৪ কোটি টাকা। ২০০৪ সালের পর এই প্রথম সরকারি খাতে এত কম বিনিয়োগ হয়েছে।

দ্য সেন্টার ফর ইন্ডিয়ান ইকনমি উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছে, ভারতে বিনিয়োগ হঠাৎ করে কমে যায়নি। গত সাড়ে তিন বছর ধরে ক্রমশ নীচের দিকে যাচ্ছে দেশের অর্থনীতির অভিমুখ। তবে তা বেশি প্রকট হয়েছে ২০১৮-এর অক্টোবর থেকে ডিসেম্বরে। কেন্দ্রীয় সরকারের একাধিক নীতি এর জন্য দায়ী। বাজারে নতুন প্রকল্প যেমন আসছে না, তেমনই পুরনো প্রকল্পগুলি মাঝপথে আটকে রয়েছে। বহু প্রকল্প অনুমোদন পেলেও এখনও কাজ শুরু করে উঠতে পারেনি। এর ফলে বৈদেশিক ক্ষেত্রে ভারতের ঋণ বাড়বে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *